‘প্রতিবন্ধীদের প্রশিক্ষণ ও কর্মসংস্থান সমৃদ্ধি আনবে’

‘প্রতিবন্ধীদের প্রশিক্ষণ ও কর্মসংস্থান সমৃদ্ধি আনবে’

তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বিশেষায়িত শিক্ষা, উপযুক্ত প্রশিক্ষণ, কর্মসংস্থান ও প্রবেশগম্যতা নিশ্চিত করার মাধ্যমে সমাজে প্রতিবন্ধীদের যোগ্য অবদান রাখার ক্ষেত্রে তৈরিতে গণমাধ্যম এবং কর্পোরেট প্রতিষ্ঠানগুলোর প্রতি উদাত্ত আহ্বান জানিয়েছেন ।

গতকাল বুধবার দুপুরে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে স্থানীয় সরকার ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে ‘প্রতিবন্ধীদের কর্মসংস্থান এবং গণমাধ্যম ও কর্পোরেট মহলের ভূমিকা’ শীর্ষক কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ আহ্বান জানান।

বেসরকারি সংস্থা লিওনার্ড চেশিয়ার ডিজএবিলিটি (এলসিডি) বাংলাদেশ এ কর্মশালার আয়োজন করে।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, প্রতিবন্ধীরা সমাজের সম্পদ। তাদের সমতার দিকগুলো চিহ্নিত করতে পারলে সমাজ আরো সমৃদ্ধ হবে। প্রতিবন্ধী জনগোষ্ঠীর উন্নয়নের জন্য বিশেষায়িত শিক্ষা, উপযুক্ত কর্মসংস্থান ও সমাজের সাথে খাপ খাওয়ানোর চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় সকলকে এগিয়ে আসতে হবে।

প্রতিবন্ধীদের আর্থিক সহায়তার জন্য সামাজিক উদ্যোগ গ্রহণের ওপর গুরুত্বারোপ করে হাসানুল হক ইনু বলেন, ২০১৩ সালে প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনার সরকার প্রতিবন্ধী কল্যাণ আইন প্রণয়নের মাধ্যমে প্রতিবন্ধীদের অধিকার ও সুরক্ষায় সরকারের দৃঢ় মনোভাব ব্যক্ত করেছে।

অর্থনীতিবিদ এবং এলসিডি বাংলাদেশের সভাপতি আবুল বারাকাতের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে কর্মশালায় বক্তব্য রাখেন এলসিডি দক্ষিণ এশিয়ার কর্মসূচি ব্যবস্থাপক শিবরাম এস দেশপান্ডে, এক্সেঞ্চার কমিউনিকেশনস ইনফ্রাস্ট্রাকচার সলুশনস লিমিটেডের প্রধান নির্বাহী রায়হান শামসী, আখতার গ্রুপের সভাপতি ও এফবিসিসিআই পরিচালক কে এম আখতারুজ্জামান এবং রোটারি বাংলাদেশের ঢাকা ডিস্ট্রিক্ট গভর্নর এস এ এম শওকত হোসেন।

অর্থনীতিবিদ আবুল বারাকাত তার বক্তৃতায় প্রতিবন্ধীবান্ধব বাজেট প্রণয়নের জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান। আয়োজক সংস্থার পরিচালনা পর্ষদের সদস্য অধ্যাপক ড. সাদেকা হালিম মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন।

2 কমেন্টসমুহ

উত্তর