পার্লামেন্ট ভেঙে দিয়ে আগাম নির্বাচন অবৈধ: শ্রীলঙ্কার সুপ্রিম কোর্ট

পার্লামেন্ট ভেঙে দিয়ে প্রেসিডেন্ট মৈত্রিপালা সিরিসেনা আগাম নির্বাচনের যে ঘোষণা দিয়েছেন তা অবৈধ বলে রায় দিয়েছে শ্রীলঙ্কার সুপ্রিম কোর্ট। বৃহস্পতিবার এই রায় দেয় দেশটির সর্বোচ্চ আদালত। ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স এখবর জানিয়েছে।

নভেম্বর শ্রীলঙ্কার পার্লামেন্ট ভেঙে দিয়ে ৬ জানুয়ারি আগাম সাধারণ নির্বাচনের ঘোষণা দেন প্রেসিডেন্ট সিরিসেনা। এর কয়েকদিন আগে তিনি প্রধানমন্ত্রী রনিল বিক্রমসিংহকে বরখাস্ত করেন এবং সাবেক প্রেসিডেন্ট মাহিন্দা রাজাপাকসেকে নতুন প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নিয়োগ দেন। কিন্তু বৃহস্পতিবার সুপ্রিম কোর্ট প্রেসিডেন্টের এই পদক্ষেপকে অবৈধ ঘোষণা করেছেন।

রায়ে সুপ্রিম কোর্টের বিচারক সিসিরা ডি অ্যাব্রুউ বলেন, প্রেসিডেন্ট সাড়ে চার বছরের আগে পার্লামেন্ট ভেঙে দিতে পারেন না।

আদালতের এই রায়ের ফলে শ্রীলঙ্কার সাধারণ নির্বাচন ২০২০ সালের ফেব্রুয়ারিতেই অনুষ্ঠিত হবে। এতে করে বিক্রমসিংহে প্রধানমন্ত্রিত্ব ফিরে পেতে পারেন। কারণ পার্লামেন্টে এখনও তার জোটের সংখ্যাগরিষ্ঠতা রয়েছে।

গত ২৬ অক্টোবর রনিল বিক্রমাসিংহেকে বরখাস্ত করেন এবং সাবেক প্রেসিডেন্ট রাজাপাকসেকে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নিয়োগ দেওয়ার মধ্য দিয়ে শ্রীলঙ্কায় রাজনৈতিক সংকটের শুরু হয়। প্রেসিডেন্টের এ সিদ্ধান্ত চ্যালেঞ্জের মুখে পড়লে দেশটির পার্লামেন্টে দুইবার বিক্রমাসিংহের পক্ষে সংখ্যাগরিষ্ঠতা প্রমাণিত হয়। তবু সিরিসেনা সেই ফলাফল মানতে অস্বীকার করেন ‘যথাযথ প্রক্রিয়া’ না মানার আপত্তি উল্লেখ করে। দেশটির স্পিকার মন্তব্য করেছেন, শ্রীলঙ্কায় কার্যত কোনও প্রধানমন্ত্রী নেই।