সড়ক ও মহাসড়ক থেকে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের ঘোষনা সেতুমন্ত্রীর

সাত দিনের নোটিশ দিয়ে সড়ক ও মহাসড়ক থেকে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের নির্দেশ দিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি গতকাল শুক্রবার দুপুরে গাজীপুরের চন্দ্রায় ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক চার লেনে প্রশস্তকরণ ও ফ্লাইওভার নির্মাণকাজের অগ্রগতি পরিদর্শনে এসে এ কথা জানান।

তিনি বলেন, সরকারের অগ্রাধিকার হচ্ছে সড়কে শৃঙ্খলা, পরিবহনে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনা। সেজন্য সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরকে নির্দেশ দিয়েছি, সাত দিনের নোটিশ দিয়ে সড়ক, মহাসড়ক অবৈধ দখলমুক্ত করতে হবে। এখনই এই কাজটি আমাদের করতে হবে। পরে নানা রাজনৈতিক চাপ আসে, চাপের মুখে কাজ করা যায় না। আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি, সড়কগুলো অবৈধ দখলমুক্ত করব। সাত দিনের নোটিশ দিয়ে সারাদেশে কাজ শুরু হবে। অবৈধ স্থাপনা ও যত্রতত্র পার্কিং বন্ধ হলে শৃঙ্খলা অনেকাংশে ফিরে আসবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।

বিএনপিকে নিয়ে গঠিত জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সংলাপের দাবিকে হাস্যকর মন্তব্য করে মন্ত্রী বলেন, এই নির্বাচন যদি তারা মনে করে সঠিক নয়, এটা তারা বলতেই পারে। আমরা বলব, জনগণ নির্বাচনে ভোট দিয়েছে, আওয়ামী লীগ ও শেখ হাসিনাকে বিজয়ী করেছে। এই নির্বাচন নিয়ে পৃথিবীর কোথাও প্রশ্ন নেই। বাংলাদেশেও নেই, জনগণের মধ্যে নেই। তাদেরই (ঐক্যফ্রন্ট) জনগণ বরং ভোট না দিয়ে প্রত্যাখ্যান করেছে। যারা আন্দোলনে প্রত্যাখ্যাত, নির্বাচনেও জনগণ তাদের প্রত্যাখ্যান করেছে। এখন তারা নানা দাবি উত্থাপন করে নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করার যত চক্রান্তই করুক, দেশের জনগণের কাছে তাদের দাবির কোনো আবেদন নেই।

এ সময় মন্ত্রীর সঙ্গে ঢাকা বিভাগীয় তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী সবুজউদ্দিন খান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক দিদারে আলম চৌধুরী, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আমিনুল ইসলামসহ সড়ক ও জনপথ বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।