‘থামার ইচ্ছা ছিল না হামলাকারীর’

নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জাসিন্ডা আর্ডার্ন বলেছেন, ক্রাইস্টচার্চে দুই মসজিদে হামলাকারী অস্ট্রেলিয়ান বংশোদ্ভূত ব্রেন্টন ট্যারেন্ট হামলা চালানোর জন্য তার ব্যবহৃত বন্দুকটি সংশোধন করে নিয়েছিল। নিজের গাড়িতেও অস্ত্র মজুদ করে নিয়ে এসেছিল। সে কারণে মনে হচ্ছে, থামার ইচ্ছা ছিল না ওই হামলাকারীর।

শনিবার এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি আরো বলেন, ব্রেন্টন ট্যারেন্টের নামে পাঁচটি বন্দুক এবং একটি আগ্নেয়াস্ত্রের লাইসেন্স রয়েছে। ২০১৭ সালের নভেম্বরে তিনি অস্ত্রের লাইসেন্স নেন। হামলা চালানোর জন্যই তিনি অস্ত্র কিনেছিলেন।

তিনি আরো বলেন, অপ্রিয় হলেও সত্য যে, অনেকেই অস্ত্রের জন্য লাইসেন্স চাইছে। মানুষের মধ্যে এক ধরনের পরিবর্তন চোখে পড়ছে। বিষয়টি আমার মাথায় থাকলো।

নিউজিল্যান্ডের অ্যাটর্নি জেনারেল ডেভিড পার্কার বলেন, সেমি-স্বয়ংক্রিয় অস্ত্র বাতিলের ব্যাপারে চিন্তা করছে সরকার। তবে এটা চূড়ান্ত কোনো সিদ্ধান্ত নয়। এসব ঘটনার পর আমাদের দেশে অস্ত্রের লাইসেন্স পেতে হলে কঠিন পদ্ধতির মধ্য দিয়ে যেতে হবে।