শিক্ষককে হাতুড়ি পেটা

সোলায়মান পিন্টু, কলাপাড়া (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি।। কলাপাড়ার খেপুপাড়া নেছার উদ্দিন সিনিয়র ফাজিল মাদ্রাসার গনিত শিক্ষক জাকির হোসেনের (৩০) উপর সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটেছে। সোমবার দুপুরে সরকারী মোজাহার বিশ্বাস কলেজের পিছনের সড়কে এ হামলার ঘটনা ঘটে। এতে ওই শিক্ষকের দুই পা ও মাথা গুরুতর জখম হয়। স্থানীয়রা তাকে আশংকা জনক অবস্থায় উদ্ধার করে কলাপাড়া হাসপাতালে ভর্তি করেছে।
স্থানীয় ও আহত সূত্রে জানা যায়, কলেজের পিছনের সড়ক দিয়ে শিক্ষক জাকির ও কয়েকজন শিক্ষার্থী মাদ্রসার দিকে যাচ্ছিলেন। এসময় পিছন দিক থেকে মটরসাইকেলে আসা তিন যুবক রানা(২৮), রায়হান(৩০) ও নাদিম(২৮) তার উপর লোহার এঙ্গেল, রেঞ্জ ও হাতুরি দিয়ে অতর্কিত হামলা চালায়। এতে তিনি গুরুতর জখম হন।
এদিকে এ হামলার ঘটনা শুনে তাকে হাসপাতালে দেখতে আসেন নব নির্বাচিত কলাপাড়া উপজেলা চেয়্যারমান এস.এম রাকিবুল আহসান, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. মনিরুজ্জামান খান, খেপুপাড়া নেছার উদ্দিন সিনিয়র মাদ্রাসার অধ্যক্ষ আবদুল কাইয়ুম, প্রেসক্লাব সভাপতি মেজবাহ উদ্দিন মাননুসহ বিভিন্ন স্কুল মাদ্রসার শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও বিভিন্ন সংগঠনের রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ।
কলাপাড়া হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. আশ্রাফুল ইসলাম বলেন, শিক্ষক জাকিরের দুই পা, হাটু ও মাথায় গুরুতর জখম রয়েছে। সিটি স্ক্যান করতে দিয়েছি। রিপোর্ট পেলে বোঝা যাবে।
এঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে উপজেলা শিক্ষক সমিতির সহ-সভাপতি ও খেপুপাড়া সরকারী মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক (ভারপ্রাপ্ত) আবদুর রহিম বলেন, এটা আসলেই দু:খজনক ঘটনা। দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাচ্ছি।
কলাপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মনিরুল ইসলাম বলেন, এখন পর্যন্ত কোন অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।