‘ডোন্ট আন্ডারস্টিমেট দ্য ফিজ’

পেশায় তিনি কৌতুকাভিনেতা। লেখকও বটে। রাজনীতি আর ক্রিকেটে দারুণ আগ্রহ। অ্যান্ডি জালতজমান, ব্যাট-বলের চমকপ্রদ সব পরিসংখ্যান হাজির করতে যার জুড়ি মেলা ভার। বিশ্বকাপের আগে বিবিসিতে লেখা নিজের কলামে সব দলকে সতর্ক করে বলেছেন, মোস্তাফিজুর রহমানকে খাটো করে দেখ না।

জালতজমানের নিজের দেশ ইংল্যান্ডে এবার হচ্ছে ক্রিকেটের মহোৎসব। তাই অন্য সবার চেয়ে এই ভদ্রলোকের আগ্রহটা একটু বেশি। মজার সব শব্দ চয়নে দশ দলকে নিয়ে লিখে ফেলেছেন বিশাল এক রসাত্মক ফিচার।

বাংলাদেশ প্রসঙ্গ আসতেই শুরু করেছেন এভাবে, ‘‘কোনো ঝলমলে ওয়াইন বারে সস্তা প্রসেকো (ইতালীয় পানিয়) অর্ডার দিয়ে আমি সব সময় বলি, ‘এখানে অথবা ক্রিকেট মাঠে ডোন্ট আন্ডারস্টিমেট দ্য ফিজ।’’’

মোস্তাফিজকে শুধু কথার ছলে খাটো না করার পরামর্শ দেননি এই লেখক; হাজির করেছেন শক্ত যুক্তিও।

‘২০১৫ সালে ওয়ানডেতে প্রবেশের দুই ম্যাচে ভারতের বিপক্ষে মোস্তাফিজ ১১ উইকেট নেওয়ার পর থেকে এখন একটু বিপাকে থাকতেই পারে, কিন্তু গত বিশ্বকাপের পর ৪০ উইকেট নেওয়া সেরা ৩০ বোলারের মধ্যে তার গড় (২২.২৭) দ্বিতীয় সেরা।’

মোস্তাফিজ ২০১৫ থেকে ২০১৯ সালের এখন পর্যন্ত ম্যাচ খেলেছেন ৪৬টি। এই সময়ে ৩৭৮.৪ ওভার বল করে ১৮৪৯ রান দিয়ে উইকেট নিয়েছেন ৮৩টি। শীর্ষে থাকা ভারতের জসপ্রিত বুমরাহ ৪৯ ম্যাচে ৪১৭.৩ ওভার হাত ঘুরিয়ে ১৮৮৩ রান দিয়ে ৮৫ উইকেট নিয়েছেন।

বাংলাদেশ দলকে যদি কেউ অনভিজ্ঞ বলতে চায়, জালতজমান তাদের উত্তর দিতে চান এভাবে, ‘অভিজ্ঞতাই যদি সব হয়, তবে তারা এখনই ১৬ জুলাইয়ের জন্য একটি খোলা বাস ভাড়া করতে পারে। তাদের অধিনায়ক মাশরাফী মোর্ত্তজা এই বিশ্বকাপে একমাত্র পেসার, যিনি ২০০৩ সালের টুর্নামেন্টে খেলেছেন। ২০১৯ সালের বিশ্বকাপে দশ দলে মোট ১১ জন তারকা আছে, যারা ২০০৭ বিশ্বকাপে খেলেছে।

এর মধ্যে বাংলাদেশেই চারজন (মাশরাফী, সাকিব আল হাসান, তামিম ইকবাল এবং মুশফিকুর রহিম)।