ধর্ষণ করলে করা হবে নপুংসক

যুক্তরাষ্ট্রের আলাবামা অঙ্গরাজ্যে শিশু ধর্ষণ রুখতে নতুন এক আইন পাস করা হয়েছে। ওই আইনে, ১৩ বছরের কম বয়সী কোনো শিশুকে ধর্ষণ করলে ধর্ষকরের শরীরে রাসায়নিক প্রবেশ করিয়ে নপুংসক করা হবে।

সংবাদমাধ্যম ফক্স নিউজ জানায়, শিশুদের ধর্ষণের হাত থেকে বাঁচাতে আলাবামার গভর্নরের অনুমতিতেই আইনটি কার্যকর করা হয়েছে। আইন অনুযায়ী ধর্ষককে ইনজেকশন দিয়ে তার যৌনশক্তিকে অক্ষম করে দেওয়া হবে। এই পদ্ধতিতে দোষীকে একটি নির্দিষ্ট সময় পর পর সারাজীবন ইনজেকশন নিতে হবে। আর শুধু আদালতের নির্দেশেই তা বন্ধ করা যাবে।

জানা গেছে, ওই ইনজেকশন দিলে ধর্ষক কারো সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করতে পারবে না৷ তবে কোনো অপরাধী যদি জেলে থাকে তাকে ইনজেকশন দেওয়া হবে না। প্যারোলে ছাড়া পাওয়ার পর তার শরীরে এটি পুশ করা হবে।

তবে এমন আইনের বিরোধীতা করেছেন অনেকেই। তারা জানিয়েছেন এই আইন যুক্তরাষ্ট্রের সংবিধানের অষ্টম সংশোধনী লঙ্ঘন করে। এই সংশোধনীতে যেকোনো ধরনের নিষ্ঠুর শাস্তির প্রতি নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন অঙ্গরাজ্যে ধর্ষণের শাস্তি হিসেবে রাসায়নিক শরীরে প্রবেশ করিয়ে নপুংসক করা হয়েছে। এগুলোর মধ্যে জর্জিয়া, লোয়া, লুসিয়ানা, মোন্টানা, ওরেগন, টেক্সাসসহ কয়েকটি অঙ্গরাজ্য রয়েছে।