গর্ভাবস্থায় প্লাসেন্টা প্রিভিয়ার জটিলতার কারণসমূহ

গর্ভাবস্থায় প্লাসেন্টা বা গর্ভফুলটি জরায়ুর একদম নিচের দিকে বা জরায়ুমুখে লেগে থাকলে তাকে প্লাসেন্টা প্রিভিয়া বলা হয়। গর্ভাবস্থায় রক্তপাত থেকে শুরু করে অনেক জটিল সমস্যা হতে পারে প্লাসেন্টা প্রিভিয়া থেকে। গর্ভাবস্থায় প্লাসেন্টা প্রিভিয়া রোধ করতে জেনে নিন এর কারণগুলোঃ

– পূর্ববর্তী প্লাসেন্টা প্রিভিয়ার ইতিহাস থাকলে।

– পূর্ববর্তী সিজারিয়ান সেকশন।

– ২০ বছরের কম এবং ৩৫ বছরের বেশী বয়সে গর্ভধারণ করলে।

– গর্ভাবস্থায় এলকোহল সেবন, গর্ভাবস্থায় ধূমপান, গর্ভাবস্থায় কোকেন ব্যবহার।

– কম সময়ের ব্যবধানে বারবার সন্তানপ্রসব।

– যমজ বাচ্চা বা এরিথ্রোব্লাস্টোসিসজনিত বড় গর্ভফুলসহ গর্ভধারণ। এ অবস্থায় যারা ৩৬ সপ্তাহের কম গর্ভবতী এবং যাদের শুধুমাত্র অল্প পরিমাণ রক্তপাত হয়েছে তাদের সম্পূর্ন বিশ্রামে থাকতে হবে এবং যৌন মিলন করা যাবেনা। আর যারা ৩৬ সপ্তাহের বেশী গর্ভবতী এবং বেশি পরিমাণ রক্তস্রাব হয়েছে, তাদের দ্রুত সিজারিয়ান সেকশন করতে হবে।