শিক্ষাঙ্গনসারাদেশ

ইউজিসির দায়িত্বহীনতার দায়ভার তো আমরা নেব না: আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা

বশেমুরবিপ্রবি প্রতিনিধিঃ গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে টানা ১২ দিনে আন্দোলনে বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগ। গত ৬ ফেব্রুয়ারি থেকে ইতিহাস বিভাগের অনুমোদনের দাবিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের সামনে আন্দোলন করছে শিক্ষার্থীরা। আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা তাদের দাবি আদায়ের জন্য প্রশাসনিক ভবন ও একাডেমিক ভবন তালা বদ্ধ করে রেখেছে।
গতকাল বিভিন্ন গণমাধ্যমে ইউজিসির চেয়ারম্যান কাজী শহিদুল ইসলাম এর ইতিহাস বিভাগের অনুমোদনের বিপরীতে একটি বক্তব্য প্রচারিত হলে শিক্ষার্থীরা তার বক্তব্যকে নাকোচ করে দেয়। পাশাপাশি আজকের এই পরিস্থিতির জন্য তারা বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনকে দোষারোপ করেন।
ইতিহাস বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী শাহিন বলেন, “আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ে ইতিহাস বিভাগের অগ্রযাত্রা ৩ বছর চলছে। আমাদের ভর্তি বিজ্ঞপ্তি থেকে শুরু করে প্রত্যেকটি নোটিশে ইতিহাস বিভাগের নাম স্পষ্ট উল্লেখ করা ছিল। একজন শিক্ষার্থী যখন কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হয় তখন তার জানার কথা নয় বিভাগের অনুমোদন আছে কি নাই,সেটা তদারকি করা অবশ্যই ইউজিসির কাজ। এই ইউজিসির দায়িত্বহীনতার দায়ভার তো আমরা ৪১৩ জন শিক্ষার্থী নেব না। আমরা আমাদের দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আমাদের আন্দোলন চালিয়ে যাব।”
রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী রাকিব জানান, ইতিহাস মানে বাংলাদেশ ইতিহাস মানে বঙ্গবন্ধু। তাই বঙ্গবন্ধুর নামাঙ্কিত বিশ্ববিদ্যালয়ে বঙ্গবন্ধুর পূন্যভূমিতে ইতিহাস বিভাগ অনুমোদনের জোর দাবী জানাচ্ছি। যাতে আমরা দ্রুত আমাদের একাডেমিকসহ সকল কার্যক্রম শুরু করতে পারি।
গতকাল সকাল ৯ঃ৩০ মিনিটে বিশ্ববিদ্যালয়ের মেইন গেট সংলগ্ন সাধারন শিক্ষার্থীদের ব্যানারে একাডেমিক ও প্রশাসনিক কার্যক্রমে ফিরে যাওয়ার পক্ষে মানববন্ধন করেন শিক্ষার্থীরা। তারা জানান,আমরা দ্রুত আমাদের একাডেমিক কার্যক্রমে ফিরে যেতে চাচ্ছি। আমাদের প্রয়োজনীয় অনেক কাগজপত্র সংগ্রহ করতে পারছি না। তাতে দেখা যাবে আমাদের ১ টি বছর ক্ষতি হয়ে যাবে। তাই ইউজিসির কাছে আমাদের আকুল আবেদন তারা যেন দ্রুত এই সমস্যার সমাধান করেন।
এই বিষয়ে জানতে চাইলে চলতি উপাচার্য ড. মোঃ শাহজাহান বলেন, “আগামী ১৮ ফেব্রুয়ারি ইউজিসির সাথে আমাদের সভা হবে। আমরা এই সভায় আমাদের সকল সমস্যা সমাধান করার চেষ্টা করব।”
উল্লেখ্য,গত ৭ ফেব্রুয়ারি ইউজিসি বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের চলতি ৩ টি ব্যাচকে অনুমোদন দিয়ে আগামী বছর বিভাগটিতে শিক্ষার্থী ভর্তিতে নিষেধাজ্ঞা দেয়।
আরো দেখুন

সম্পর্কিত প্রবন্ধ

Back to top button