রংপুর বিভাগসারাদেশ

কানে হেডফোন, ট্রাকের চাকার নিচে শিক্ষার্থীর মাথা

কুড়িগ্রাম: প্রতিদিনের মতোই সকালে ঘুম থেকে উঠে কানে হেডফোন দিয়ে সাইকেলে চড়ে বাড়ি থেকে দুই কিলোমিটার দূরে প্রাইভেট পড়তে যাচ্ছিলো তানজিদ ইসলাম (১৬)। কিন্তু বাড়ি থেকে ১০ মিনিটের দূরত্বে গিয়ে জীবন প্রদীপ নিভে যায় তার। উলিপুর-রাজারহাট সড়কে ওঠার পরপরই পেছন থেকে আসা বালু বোঝাই ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলেই প্রাণ যায় এই শিক্ষার্থীর।
সোমবার (২৫ অক্টোবর) সকাল ৭টার দিকে কুড়িগ্রামের উলিপুর পৌরসভা এলাকার ২ নং ওয়ার্ডে উলিপুর-রাজারহাট সড়কের মহেশের বাজারে ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে এই শিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছে।
নিহত তানজিদ ইসলাম বাকরেরহাট উচ্চ বিদ্যালয়ের এসএসসি পরীক্ষার্থী এবং পৌরসভার নিজাইখামার গ্রামের মৃত মো. বক্তার আলী-হাসিনা খাতুন দম্পতির সন্তান।
প্রতক্ষ্যদর্শীরা জানায়, আজ সকাল ৭টার দিকে এক সাইকেল আরোহীকে পেছন থেকে আসা বালু বোঝাই ট্রাক ধাক্কা দিলে সাইকেল আরোহী ছিটকে পরে। এরপর ট্রাকের পেছনের চাকার নিচে আরোহীর মাথা পরে থেতলে যায়। প্রাথমিক অবস্থায় যুবকের পরিচয় নিশ্চিত করা হয় তার সাথে থাকা বই-খাতায় লেখা নাম দেখে।
প্রতক্ষ্যদর্শীদের আরেক সূত্র জানায়, নিহত শিক্ষার্থীর কানে হেডফোন ছিলো এবং সে এক হাত দিয়ে সাইকেল চালিয়ে যাচ্ছিলো। এছাড়াও অপর হাতে সে সাইকেল চালানো অবস্থায় খাবার খাচ্ছিলো। অসাবধানতাই দুর্ঘটনার অন্যতম কারণ বলে জানিয়েছে সূত্রটি।
সর্বশেষ পাওয়া তথ্যমতে দুর্ঘটনার পরপরই খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট গিয়ে লাশ উদ্ধার করে এবং ট্রাকসহ (ঢাকা মেট্রো-ট ১৮-৭০২৫) ট্রাক চালককে আটক করে রাখে স্থানীয়রা। এ ঘটনায় ট্রাকে থাকা অপর আরেকজন ব্যক্তি পলাতক রয়েছেন।
এ ব্যাপারে উলিপুর থানার অফিসার ইনচার্জ ইমতিয়াজ কবির জানান, আমাদের লোক ঘটনাস্থলে অবস্থান করছে। উলিপুর পৌর মেয়রের বরাত দিয়ে তিনি বলেন, উভয় পক্ষের উপস্থিতিতে সমঝোতার ব্যাপারে আলোচনা চলছে।
আরো দেখুন

সম্পর্কিত প্রবন্ধ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button